যে কারও ফেসবুক আইডি হ্যাক করুন খুব সহজে। সাথে হ্যাকিং থেকে বাচার উপায়।

আসসালামু আলাইকুম

কেমন আছেন সবাই? আসা করি ভালোই আছেন।

আজকে খুবই গুরুত্বপুর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো।
 আজকের টপিকে যা যা থাকছে
  হ্যাকিং কি?

ফেসবুক হ্যাক করা সম্ভব? 

কিভাবে ফেসবুক হ্যাক করা যায় 

হ্যাকিং থেকে বাচার উপায় 

হ্যাকিং কি?

সাধারণত হ্যাকিং হলো অনুমতি ব্যতিত কারো ব্যাক্তিগত তথ্য একাউন্ট বা ব্যাক্তিগত নেটওয়ার্কে প্রবেশের মাধ্যমে তথ্য কিংবা নেটওয়ার্কের ক্ষতিসাধন বা নিজ দখলে নেওয়া বা নেওয়ার চেষ্টা করাকে হ্যাকিং বলা হয়।

হ্যাঁ....হ্যাকিং একটি সাইবার অপরাধ

ফেসবুক হ্যাক করা সম্ভব?

হ্যাঁ...ফেসবুকের সিকুউরিটি অনেক উন্নত হলেও আপনি ফাদে পরে দক্ষ একজন হ্যাকারের কবলে পরে আপনি ফেসবুকে হ্যাকিং এর কবলে পড়তে পারেন। এক্ষেএে হ্যাকার আপনাকে ফেসবুকে খুব কাছ থেকে ফলো করবে। আপনি কোন বিষয়টি পছন্দ করেন এমন কোনো বিষয়কে টার্গেট করে আপনাকে জালে আটকানোর পায়তারা করবে। এছারাও ফেসবুকের পাসওয়ার্ড রিকভারি অপশন ব্যাবহার করে দক্ষ কোন হ্যাকারের ফাদে পড়তে পারেন আপনি।

কিভাবে ফেসবুক হ্যাক করা যায়

ফেসবুক হ্যাক করার অনেকগুলো পদ্ধতি রয়েছে হ্যাকারদের কছে। তবে সবচেয়ে ব্যাবহ্ত পদ্ধতি হলো ফিশিং পেজ এর মাধ্যমে হ্যাকিং। চলুন দেখে আসা যাক কিভাবে হ্যাকাররা ফিশিং পেজ এর মাধ্যমে ফেসবুক একাউন্ট ছিনিয়ে নেয়।

 প্রথমে আপনার ব্যাবহ্ত ব্রাউজারের ডেক্সটপ মোড অন করুন।
 এরপর এই লিংকে যান
এবার এখানে আপনার ই-মেইল দিয়ে একটি একাউন্ট খুলুন।
 এরপর লগইন করুন। 
 এরপর এখান থেকে আপনার ভিকটিম এর পছন্দের যে কোন একটি চয়েস করুন।

যেমন আপনি যার আইডি হ্যাক করবেন তার যদি বেশি লাইক পছন্দ হয় তাহলে 1000 ফলোয়ার অপশনটি সিলেক্ট করুন এবং এখানে ক্লিক করুন। একটি লিংক পাবেন সেটি কপি করুন।

 এবার আপনি লিংকটি যার একাউন্ট হ্যাক করতে চান তাকে পাঠিয়ে বলুন এখানে ক্লিক করে লগিন করতে ১০০০ ফলোয়ার পাওয়া যায়।
সে যদি লিংকে ক্লিক করে তাহলে এমন দেখতে পাবে।

 যদি তার একাউন্ট লগিন করে ফেলে তাহলে আপনার দ্বারা সে হ্যাকিং এর কবলে পরেছে।

 তার একাউন্ট পাসওয়ার্ড পেতে আপনি ঐ ওয়েবসাইটে লগিন করুন এবং মাই ভিক্টিম এ ক্লিক করুন।

 এবার দেখুন তার একাউন্ট এবং পাসওয়ার্ড আপনার কাছে চলে এসেছে।

বি:দ্রঃ এটি ব্যাবহার কারো একাউন্ট হ্যাক করা এবং হ্যাক করার চেস্টা করা একটি সাইবার অপরাধ। এটি শুধুমাএ সচেতনতার জন্য দেখানো হয়েছে।

হ্যাকিং থেকে বাচার উপায়

আপনার ব্যাক্তিগত কোন নেটওয়ার্ক বা একাউন্ট যেন হ্যাকিং এর কবলে না পড়ে এজন্য আপনাকে সচেতন হতে হবে। আপনাকে জানতে হবে হ্যাকিং কি এবং কিভাবে হ্যাক করা হয়। হ্যাকিং পদ্ধতি আপনার জানা থাকলে অবশ্যই আপনি কোন ফাদে পা দেবেন না। ফলে বেচে যাবেন হ্যাকিং থেকে। কেউ যদি আপনাকে এমন কোন লিংক দিয়ে থাকে তাহলে তা থাকে দুরে থাকুন।

 আরো ভালো হয় যদি আপনি বলে দিতে পারেন কোনটি ফিশিং পেজ আর কোনটি সঠিক পেজ।
 এটি পরিক্ষা করার জন্য আপনি লিংকটির URL বক্সে লক্ষ করুন।

 ফেসবুকের আসল URL ঠিকানা m.facebook.com বা web.facebook.com/www.facebook.com এর বাইরে যদি কোন এড্রেস দেখতে পান তাহলে মনে করতে হবে এটি একটি ফিশিং পেজ। এবং সেই পেজে লগিন থেকে দুরে থাকুন।

প্রযুক্তি বিষয়ক আপনার জানা তথ্য শেয়ার করতে পারেন আমাদের ওয়েবসাইটে।


দেখুন কিভাবে পোস্ট করবেন আমাদের ওয়েবসাইটে।

নিয়মিত প্রযুক্তি বিষয়ক আপডেট পেতে আমাদের সাথেই থাকুন। 

No comments

Powered by Blogger.